1. admin@mathbariasamachar.com : admin :
শিরোনাম :
ঝাকঝমক আয়োজনে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করল মঠবাড়িয়ার নট আউট ফুটবল একাডেমি বামনা থানা অফিসার ইনচার্জের সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে উপজেলার সব ইউনিয়নে ব্যাতিক্রমী মহড়া জীবন-জীবিকার বাজেটে প্রত্যাশা ও প্রাপ্তি মঠবাড়িয়ায় দুর্ধর্ষ ডাকাত গ্রেপ্তার – ২ মঠবাড়িয়ায় জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষের হামলায় -২ নারী সহ আহত -৩ মঠবাড়িয়ায় সংখ্যালগুদের জমি মসজিদের নামে দখলের পায়তারা”সম্প্রদায়িক দাঙ্গার আশঙ্কা মঠবাড়িয়ায় একদিনে দুই গৃহবধূর আত্মহত্যা মঠবাড়িয়া পৌরসভার রাস্তার বেহাল দশা “জন দুর্ভোগে এলাকাবাসী পিরোজপুর ঘুর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে উপহার সামগ্রী বিতরণ করলো IHWS মঠবাড়িয়ায় যুবককে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে হত্যা চেষ্টার ঘটনার মামলায় গ্রেপ্তার-১

আজ ঘূর্ণিঝড় ‘সিডর’ এর সেই ভয়াল ১৫ নভেম্বর।

  • প্রকাশনা : রবিবার, ১৫ নভেম্বর, ২০২০
  • ৫১ বার

স্টাফ রিপোর্টার: মনে পরে সেই দিনের কথা ২০০৭ সালের এই দিনে স্মরণকালের অন্যতম ভয়াবহ সামুদ্রিক ঘূর্ণিঝড় ‘সিডর’ আঘাত হানে বরিশাল, বরগুনাসহ দেশের উপকূলীয় এলাকায়। সে সময় বাতাসের গতি ছিল ঘন্টায় প্রায় ২৫০ কিলোমিটার। এতে প্রায় সাড়ে ৩ হাজার মানুষের মৃত্যু হয়, ৫৫ হাজার মানুষ আহত হন এবং ৮৫ লাখ মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়। উপকূলের মানুষ আজও আতকে ওঠে সেই রাতের‌ কথা মনে করলে। আমরা প্রার্থনা করি আল্লাহ যেনো এরকম দূর্যোগ থেকে আমাদের দেশকে রক্ষা করেন এবং সেদিনের দূর্যোগে মৃত সকল মুসলিমকে জান্নাতবাসী করেন। আমিন। রাতের নিস্তব্ধতা ভেদ করে এটি মুহুর্তেই ধ্বংস করে দেয় বাংলার দক্ষিন পশ্চিম উপকূল। মানুষ অবাক হয়ে প্রত্যক্ষ করলো প্রকৃতির ভয়ঙ্কর রুপ ও ধ্বংসলিলা। এটি ছিলো শতাব্দির সেরা সাইক্লোন। এটি যখন ১৫ ই নভেম্বর সন্ধ্যায় বাংলাদেশের সুন্দরবন, বাগেরহাট, বরগুনা, তালপট্রি দ্বীপে আঘাত হানে তখন এর গতিবেগ ছিলো ঘন্টায় প্রায় ২৬০ কি.মি. যা দমকা ও ঝড়ো হাওয়া ঘন্টায় প্রায় ৩০৫ কি.মি. পর্যন্ত বৃদ্ধি পায়, ক্যাটেগরি ৫ মানের এই ঘূর্ণিঝড়টি সরকারি হিসেবে পরেরদিন বিকাল পর্যন্ত ২২১৭ জনের প্রানহাণির খবর পাওয়া যায়, তবে বাস্তবে আরও অনেক মানুষের প্রানহাণি ঘটে, ঘরবাড়ি ধংস হয় প্রায় ৯৬৮০০০ টি প্রায় ২১০০০ হেক্টর জমির ফসল ধংস হয় প্রায় ২৪২০০০ গৃহপালিত পশু মারাযায়, বাংলাদেশ সরকার এটাকে জাতীয় দূর্যোগ বলে আখ্যায়িত করে, ঘূর্ণিঝড় সিডার এতই শক্তিশালী ছিলো যে এটি ১৫ ই নভেম্বর সন্ধ্যায় বাগেরহাট জেলায় আঘাত হেনে ১৬ ই নভেম্বর রাত ৩ টায় মাত্র ৮ ঘন্টায় বাংলাদেশের বক্ষ্য বিদির্ন করে সিলেট জেলার উপর দিয়ে চলেযায়।,ঘূর্ণিঝড় সিডারে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্থ হয় বাগেরহাট জেলার শরনখোলা উপজেলা। আজও ১৩ বছর পর সেই রাতের কথা মনে পড়লে আৎকে উঠে সেদিনের বেঁচে যাওয়া মানুষদের হ্রদয়, তাদের ঘুম ভেঙে যায় আকাশ বাতাস ভারি হয়ে ওঠে সজন হারানোর বেদনায়। সেরাতের কথা তাদের সারাজীবন মনে থাকবে। আমরা মহান আল্লাহ তায়ালার কাছে এই দোয়া করি তিনি যেনো সেই দূর্যোগে নিহত মানুষদের জান্নাত দান করেন ও ববিস্যতে এধরনের ভয়ঙ্কর দূর্যোগ থেকে আমাদের ও আমাদের দেশকে যেনো হেপাজতে রাখেন আমীন।

Facebook

আজকের বাংলা তারিখ

  • আজ শনিবার, ১২ই জুন, ২০২১ ইং
  • ২৯শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ (গ্রীষ্মকাল)
  • ১লা জ্বিলকদ, ১৪৪২ হিজরী

Please Share

More News Of This Category
© All rights reserved © 2017 mathbaria samacher
আইটি সাপোর্ট web Disgine it