রাজনীতি

মঠবাড়িয়ায় ইউপি নির্বাচনী সহিংসতায় নারীসহ আহত -৬

  প্রতিনিধি ১৫ জুন ২০২১ , ৫:১২:১২ প্রিন্ট সংস্করণ

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে পৃথক সংঘর্ষে নারীসহ ৬ জন গুরুতর জখম হয়েছেন। সোমবার রাতে উপজেলার মিরুখালী ও বেতমোড় কালিরহাট বাজারে নৌকা ও স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে এ হামলার ঘটনা ঘটে। হামলায় আহতরা হলেন, মিরুখালী ইউপির (আনারস প্রতীক) স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থক ফারুক হোসেন (৫৫), আ. সালাম (৪০) ও মনোয়ারা বেগম (৫৫) । অপরদিকে বেতমোড় কালীর হাট নৌকা সমর্থক মো. জলিল মিয়া(৩৫), মো. শাহিন (২২), আরিফ হোসেন (২০)। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে। হামলা শেষে স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মধ্যে ২ জনকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেন। এঘটনায় বেতমোড় ইউপির নৌকা মার্কার প্রার্থী দেলোয়ার হোসেন বাদী হয়ে ৩১ জন নামীয় স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকদের নাম উল্লেখ করে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। পরে পুলিশ আজ মঙ্গলবার এজাহার নামীয় জাকির হোসন নামের একজনকে গ্রেফতার করে। স্থানীয়রা জানান, সোমবার রাতে মিরুখালী নাগ্রাভাঙ্গা গ্রামে প্রতিপক্ষরা স্বতন্ত্র (আনারস) মার্কার সমর্থকদের বাড়িতে হামলা করে। এসময় একই পরিবারের নারীসহ তিনজন আহত হয়। অপরদিকে বেতমোড় ইউনিয়নের স্বতন্ত্র প্রার্থী খলীলুর রহমানের (অটোরিকশা প্রতীক) সমর্থকদের প্রচারণা শেষে নৌকা সমর্থকদের সাথে সংঘর্ষে জড়িয়ে পরে। এতে নৌকা সমর্থকদের তিনজন আহত হয়। পরে আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা ন্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক গুরুতর আহত ২ জনকে বরিশাল শেরে-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেন। মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো. নুরুল ইসলাম বাদল মাঠবাড়িয়া সমাচারকে জানান,হামলার ঘটনায় অভিযুক্ত একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। উভয় পক্ষ পরস্পর বিরোধী অভিযোগ করেছে। তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে

Print Friendly, PDF & Email

আরও খবর

Sponsered content

ব্রেকিং নিউজ