সম্পাদকীয়

মঠবাড়িয়ায় চৌকিদারের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির অভিযোগে আদালতে মামলা

  প্রতিনিধি ২৬ জুন ২০২১ , ১২:৪৪:৫২ প্রিন্ট সংস্করণ

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ চৌকিদার বলে কথা। পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় ৭ নং বেতমোর রাজপাড়া ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের চৌকিদার আলামিন এর বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় একই এলাকার এস্কেন্দার আলী পহলান বাদী হয়ে মঠবাড়িয়া সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে ১! মোঃ আলামিন চৌকিদার (৩৫) ২! মালেক মিয়া (৪০) ৩! মোঃ সোহাগ (৩০) উভয় পিতা সেকান্দর আলী পহলান এদের কে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেন। যাহার এম পি কেস নং ৩২৭/২১ তাং ২৪/০৬/২১, মামলা সুত্রে জানাযায় পূর্ব রাজপাড়া গ্রামের মৃত চান শরীফ পহলানের ছেলে এস্কেন্দার আলী পহলান দীর্ঘ ৫০ বছর যাবত তাহার বাবার পৈত্রিক সম্পত্তিতে বসতঘর তৈরি করে বসবাস করে আসছে। বর্তমানে বসতঘরটি পুরাতন হওয়ায় নতুন পাঁকা ঘর তৈরি করার জন্য ইট বালু রড সিমেন্ট নিয়ে কাজ করতে গেলে আলামিন চৌকিদার ও তার ভাই মালেক, সোহাগ জমি পাওয়ার দাবীতে কাজ করায় বাঁধা প্রদান করেন। এ নিয়ে স্হানীয় লোকজন ও ইউনিয়ন চেয়ারম্যান সহ শালিস বৈঠকে বসলেও আলামিন চৌকিদার গায়ের জোরে তা অমান্য করে বলেন ওখানে পাকা ঘর তৈরি করতে হলে আমাদের কে দুই লক্ষ টাকা দিতে হবে। না হয় ঘর তোলা যাবেনা বলে বিভিন্ন সময়ে ক্ষুন যখমের হুমকি দেয়। এক পর্যায়ে ঘটনার দিন ১৩/০৬/২০২১ এস্কেন্দার আলী স্হানীয় গন্যমান্য ও চেয়ারম্যানের দেয়া রোয়েদাত অনুযায়ী পুনরায় ঘর তুলতে গেলে আলামিন চৌকিদার ও তার ভাইরা মিলে দেশীয় অস্ত্র সস্ত্র নিয়ে জিম্মি করে ভয়ভীতি দেখিয়ে এস্কেন্দার আলীর পকেটে থাকা আশি হাজার টাকা জোর পূর্বক নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ পাওয়া যায় এবং বাকি এক লক্ষ বিশ হাজার টাকা এক সপ্তাহের মধ্যে না দিলে কোনো কাজ করতে দেয়া হবেনা বলে ক্ষুন যখমের হুমকি দিয়ে চলে যায়। এ ঘটনায় প্রতিপক্ষ আলামিনের মুঠোফোনে কল করে না পাওয়ায় তার পরিবারের লোকজনের কাছে জানতে চাইলে তারা জানান আমরা এস্কেন্দার আলীর জমির মধ্যে জমি পাবো তাই বিরোধ সৃষ্টি হয়েছে। এ বিষয় নাম প্রকাশ না করার শর্তে এলাকার একাধিক ব্যাক্তি বলেন আলামিন চৌকিদার সরকারি চাকুরির দাপট দেখিয়ে বিভিন্ন সময়ে এলাকায় এ রকম কান্ড করে বেড়ায়। তাছাড়া সে চৌকিদার ১ নং ওয়ার্ডের বসবাস করে ২ নং ওয়ার্ডে কিভাবে সে চাকুরী পেলো আমরা জানিনা,এখানে থেকে যতরকম অপকর্ম করে বেড়ায়। এ ব্যাপারে মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মুহাঃ নুরুল ইসলাম বাদল মামলার সত্যতা স্বীকার করে বলেন আসামী গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Print Friendly, PDF & Email

আরও খবর

Sponsered content

ব্রেকিং নিউজ