বরিশাল

শিশুদের পাঠাভ্যাস বাড়াতে হাতেখড়ির “উপকূল পাঠাগার”

  প্রতিনিধি ২৩ আগস্ট ২০২১ , ১২:৩২:৫৯ প্রিন্ট সংস্করণ

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ আজকের শিশু আগামী দিনের ভবিষ্যৎ। সুন্দর,জ্ঞানভিত্তিক সমাজ গঠন ও আলোকিত ভবিষ্যৎ গড়তে বই পড়ার বিকল্প নেই। পাঠ্য বইয়ের পাশাপাশি শিশুদেরকে শিক্ষামূলক বই পড়ে জ্ঞানার্জনে সুযোগ করে দিতে অদ্য ২৩ আগস্ট ২০২১ খ্রি. পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলার বেতমোর গ্রা‌মে “উপকূল পাঠাগার” নামে একটি পাঠাগার প্রতিষ্ঠা করে সেচ্ছাসেবী সংগঠন হাতে খড়ি ফাউন্ডেশন।পিরোজপুর জেলার মঠবাড়িয়া সদর থেকে ফসলের মাঠের বুক চিরে আকাঁ বাকা রাস্তা চলে গেছে বেতমোর গ্রামে। বাতাসে যেন ছড়িয়ে পড়ছে সবুজের ঘ্রাণ। গ্রামীণ শিক্ষার্থীদের বইপড়ার প্রতি আগ্রহী করে তুলতে হাতেখড়ি ফাউণ্ডেশন গড়ে তোলেন “উপকূল পাঠাগার”। অন্ধকার দূর করে আলো ছড়াচ্ছে দুর্গম এলাকায়, হাতেখড়ির উদ্যোগে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে শিশুদের জন্য’উপকূল পাঠাগার’টি।পাঠাগারটি শুভ উদ্ভোধন করেন সাংবাদিক ও আলোকচিত্রী দেবদাস মজুমদার। উদ্ভোধন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন হাতে খড়ি ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা সুমন মিস্ত্রি সজিব, মঠবাড়িয়া উপজেলা শাখার সভাপতি পলাশ বৈরাগী, সাধারণ সম্পাদক মাসুম বিল্লাহ, সাংগঠনিক সম্পাদক দুর্জয় তালুকদার, সুমাইয়া আক্তার, আকিয়া সায়মা, এ.কে সাব্বির প্রমুখ।

সংগঠনের চেয়ারম্যান মোঃ রুবেল মিয়া বলেন, উপকূল পাঠাগার হাতে খড়ি ফাউন্ডেশনের একটি নতুন আয়োজন। শিশুরা যাতে সহজে ও আনন্দময় পরিবেশে শিক্ষাগ্রহণের সুযোগ পায় এই লক্ষ্যেই আমাদের এই “উপকূল পাঠাগার”।‘পড়াই আনন্দ’ এই স্লোগানকে সামনে রেখে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে উপকূল পাঠাগারটি। বই পড়ার পাশাপাশি শিশুরা সেখানে শিক্ষামূলক খেলনা দিয়ে খেলাধুলা, শিক্ষামূলক ভিডিও দেখা, কম্পিউটার চালনাসহ করতে পারবে ইন্টারনেট ব্যবহারের জ্ঞানার্জন। এর ফলে শিশুরা শুধু বই পড়াই নয়, পাবে কারিগরি শিক্ষায়ও দক্ষ হওয়ার সুযোগ। পাঠাগারটি শিশুদের মধ্যে পাঠাভ্যাস তৈরিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

উল্লেখ্য সামাজিক কাজে অবদান রাখায় জাতীয় পুরস্কার ‘জয় বাংলা ইয়ুথ এওয়ার্ড’-২০২০ অর্জন করে হাতে খড়ি ফাউন্ডেশন।

Print Friendly, PDF & Email

আরও খবর

Sponsered content

ব্রেকিং নিউজ