জাতীয়

আলোচিত ই-অরেঞ্জের সোহেল রানা আটক

  প্রতিনিধি ৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ , ১:৪৩:০২ প্রিন্ট সংস্করণ

মঠবাড়িয়া সমাচার অনলাইন ডেস্ক: আলোচিত ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ই-অরেঞ্জের মূল প্রতিষ্ঠান অরেঞ্জ বাংলাদেশের সভাপতি ও ঢাকা মহানগর পুলিশের বনানী থানার পরিদর্শক শেখ সোহেল রানা কোচবিহার জেলার চ্যাংরাবান্ধা সীমান্তে ভারতীয় সীমান্ত রক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) হাতে আটক হয়েছেন।শনিবার সোহেল রানাকে আটকের বিষয়টি জানিয়েছে ভারতের কোচ বিহারের সংবাদ মাধ্যম উত্তরবঙ্গ সংবাদ। তবে, সোহেল রানাকে আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করতে পারেনি বাংলাদেশ পুলিশ।

ভারতীয় গণমাধ্যম বলছে, সীমান্ত টপকে ভারতে প্রবেশের অভিযোগে শুক্রবার কোচবিহার জেলার চ্যাংরাবান্ধা সীমান্ত থেকে এক বাংলাদেশি নাগরিককে আটক করে বিএসএফ। তার কাছ থেকে বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে বিদেশি পাসপোর্ট, একাধিক মোবাইল, এটিএম কার্ড। শনিবার তাকে মেখলিগঞ্জ থানার পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হবে বলে বিএসএফ সূত্রে জানানো হয়েছে খবরে।

দাবি করা হয়, আটক ব্যক্তি বাংলাদেশের গোপালগঞ্জের বাসিন্দা শেখ সোহেল রানা। তিনি ঢাকায় বাংলাদেশ মেট্রোপলিটন পুলিশে কর্মকরত। সে দেশে তার নামে অপরাধমূলক একাধিক কাজের অভিযোগ রয়েছে বলে প্রাথমিক তদন্তে জানতে পেরেছেন বিএসএফের কর্মকর্তারা। খবরে বলা হয়, প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে, সম্ভবত গা ঢাকা দেওয়ার লক্ষ্যে ভারতে প্রবেশ করেছেন সোহেল রানা। এ ব্যাপারে তাকে আরও জিজ্ঞাসাবাদ করবে ভারতের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

গ্রাহকের এক হাজার কোটি টাকার বেশি আত্মসাতের অভিযোগে কারাগারে থাকা ই-অরেঞ্জের মালিক সোনিয়া মেহজাবিনের আপন ভাই সোহেল রানা। তার গ্রেপ্তারের বিষয়টি জানতে ঢাকা টাইমসের পক্ষ থেকে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) পরিচালক (অপারেশন) লেফটনেন্ট কর্নেল ফাইজুর রহেমানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়। তবে তিনি এ বিষয়ে অবগত নন বলে জানিয়েছেন।তিনি বলেন, ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী এ ব্যাপারে আমাদের এখন পর্যন্ত কিছু জানায়নি।

এদিকে বনানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নূরে আজম মিয়ার কাছে সোহেল রানার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, গত বৃহস্পতিবার রাতে থানায় তার সঙ্গে আমার দেখা হয়েছে। সে ওই দিন রাতে ডিউটি করেছে। তবে বর্তমানে তার অবস্থান সম্পর্কে আমার জানা নেই। গত দুদিনে তার সঙ্গে আমার দেখা হয়নি।

Print Friendly, PDF & Email

আরও খবর

Sponsered content

ব্রেকিং নিউজ