বরিশাল

ভুমিহীন নাছিরকে ঘর নির্মাণ করে দিলেন পিরোজপুরে জেলা চেয়ারম্যান”মহিউদ্দিন মহারাজ

                         মঠবাড়িয়া সমাচার ২৫ অক্টোবর ২০২১ , ১২:৩২:২১ প্রিন্ট সংস্করণ

               

পিরোজপুর প্রতিনিধি: প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে ভুমিহীন, গৃহহীন দিনমজুর নাছির উদ্দীন হাওলাদারের ভাগ্যে জোটেনি আশ্রায়ন প্রকল্পের একখানা ঘর। ঘর না পেয়ে হতাশায় ভুগছিলেন দিনমজুর নাছির (৩৫)।

অবশেষে পিরোজপুরের জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আঃ লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ মহিউদ্দিন মহারাজ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দিনমজুর নাছির উদ্দীন হাওলাদারের বসবাসের অযোগ্য জরাজীর্ণ ঘরের ছবি দেখে খালের পাশে জেলা পরিষদের জমিতে ও জেলা পরিষদের অর্থায়নে পাকা ঘর নির্মাণ করে দিলেন।

জেলা পরিষদের জমিতে একটি ছাপড়া ঘর ছিল তাও জরাজীর্ণ। বৃষ্টি এলেই চাল চুয়ে ঘরের মেঝেতে পানি পড়ে। রাতে ঠিকমত ঘুমাতে পারতেন না। যেখানে দিনমজুর নাছিরের নুন আনতে পান্তা ফুরোয়, সেখানে তাঁর জরাজীর্ণ ঘরটি মেরামত করার কোনো উপায় ছিল না। ওই গ্রামের বাসিন্দা পৌর আঃলীগের সহ,- সভাপতি ও সাবেক কান্সিলর হেমায়েত উদ্দিনের শরানাপন্ন হন।।

দিন মজুর নাছিরের দুরাবস্থার কথা ভেবে ছাপড়ার ঘরটির ছবি তুলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের ছেড়ে দেন।মুুুহূর্তের মধ্যে জরাাজীর্ণ ঘরের চিএটিি ভাইরাল হয়। হতদরিদ্র নাছিরের ঘরের ছবি দেখে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন মহারাজ এর নজরে আসে। পরে জেলা পরিষদের উদ্যোগে প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘরের আদলে নাছিরকে দুই রুম, রান্নাঘর ও শৌচাগারসহ পাকা টিনের ঘর তৈরি করে দেন।

নাছির উদ্দীন হাওলাদার মঠবাড়িয়া পৌরসভার ৩ নং ওয়ার্ডের কাছিছিড়া গ্রামের কাঞ্চন হাওলাদারে ছেলে। ৪ সন্তানের জনক নাছির দিনমজুরি করে জীবিকা নির্বাহ করেন।

ওই গ্রামের বাসিন্দা ও পৌর আঃলীগের সহ-সভাপতি হেমায়েত উদ্দিন জানান, । ছোটকাল থেকেই নাছির কে দিন মজুরের কাজ করতে দেখছি। তাঁর এ দুনিয়ায় এক শতাংশ জমিও নেই। খালের পাশে জেলা পরিষদের জমিতে পলিথিনের ছাউনি দিয়ে বসবাস করছেন। একটি জরাজীর্ণ ঘরে বসবাস করা দেখে নিজের কাছে খুুুব খারাব লাগছিল।

পরে ঘরের ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছেড়ে দিলে আর্তমানবতার সেবায় এগিয়ে এলেন গরীব দুুঃখী মেহনতী মানুষের বন্ধু জনবান্ধব জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন মহারাজ একটি পাকা ঘর করে দেন। হতদরিদ্র নাছির কে ঘর করে দেওয়ার জন্য গ্রামবাসী ও মঠবাড়িয়া বাসীর পক্ষ থেকে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কে ধন্যবাদ জানাই।

হতদরিদ্র দিনমজুর নাছির উদ্দীন হাওলাদার অশ্রুসিক্ত কন্ঠে মঠবাড়ীয়া সমাচারকে জানান, আমি গরীব মানুষ, দিনমজুরী করে জীবিকা নির্বাহ করি। একখানা ঘরের জন্য অনেকের কাছে অনুনয় বিনয় করে কোন লাভ হয়নি। শেষ পর্যন্ত জেলা চেয়ারম্যান স্যার আমাকে ঘর নির্মাণ করে দিয়েছেন। স্যারের প্রতি আমি চির কৃতজ্ঞ। নামাজ পড়ে স্যারের জন্য দোয়া করি তার মনের আশা আল্লাহতালা যেন পূরন করেন।

জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আঃলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ মহিউদ্দিন মহারাজ বলেন, প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা সারাদেশে হাজার হাজার গৃহহীনদের পাকা ঘর উপহার দিয়েছেন। আমি আমার জেলা পরিষদের তহবিল থেকে সরকারের ওই ঘরের আদলে একটি পাকা ঘর করে দিয়েছি । আমার ইচ্ছা আছে ভবিষ্যতে আরও গরিব ও দুঃস্থ মানুষের পাশে থেকে সহযোগিতা করা

আরও খবর

Sponsered content

ব্রেকিং নিউজ