প্রচ্ছদ

মঠবাড়িয়ায় নিজের বাল্য বিয়ে ঠেকাতে থানায় মাদ্রাসা ছাত্রী

                         মঠবাড়িয়া সমাচার ১৪ ডিসেম্বর ২০২১ , ৮:৩৬:৩৫ প্রিন্ট সংস্করণ

               

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় নুশরাত জাহান মিম নামে এক মাদ্রাসা ছাত্রী নিজের বাল্য বিয়ে ঠেকাতে সোমবার (১৩ ডিসেম্বর) রাতে মঠবাড়িয়া থানায় হাজির হয়েছে। মিম উপজেলার মিরুখালী ইউনিয়নের অহেদাবাদ গ্রামের নূর-আলা নূর ইসলামীয়া দাখিল মাদাসার অষ্টম শ্রেনীর ছাত্রী। সে ওই গ্রামের অটোরিক্সা চালক আব্দুর রহমানের মেয়ে। তার মা সম্প্রতি জর্ডান থেকে দেশে এসেছেন।

মঠবাড়িয়া উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা রূপ কুমার পাল ওই ছাত্রীর বরাত দিয়ে জানান, জর্ডান ফেরৎ মা ও অটো চালক বাবা ওই ছাত্রীকে না জানিয়ে বিয়ে ঠিক করেন। সোমবার বিকেলে পাশবর্তী ভান্ডারিয়া উপজেলার হরিণ পালা গ্রাম থেকে মা-বাবার পছন্দ অনুযায়ী ছেলে পক্ষ দেখতে এসে আংটি পরিয়ে দেয়। এসময় বিষয়টি মাদ্রাসা ছাত্রী নুশরাত জাহান মিম বুঝতে পেরে মা-বাবাকে না জানিয়ে রাতে থানায় হাজির হয়।

থানা পুলিশ পুলিশ ঘটনাটি আমাকে অবহিত করলে আমি থানায় গিয়ে পুলিশের সহযোগিতা নিয়ে ওই ছাত্রীর মা-বাবাকে ডেকে এনে মুসলেকা গ্রহণ করি। এসময় তারা পূর্ণ বয়স না হওয়া পর্যন্ত মেয়ে বিয়ে দিবেন না বলে প্রতিশ্রতি দেন। তবে সব দোষ নিজেদের ওপর নিয়ে ছেলের (বর) নাম ঠিকানা বলতে রাজি হননি।

বাল্য বিয়ে ঠেকাতে মাদ্রাসা ছাত্রী নুশরাত জাহান মিম এর সাহসী কাজের প্রসাংসা করে মঠবাড়িয়া থানার ওসি মুহা. নূরুল ইসলাম বাদল বলেন, এভাবেই সকল শিক্ষার্থী বাল্য বিবাহ বন্ধ করে বাল্য বিয়ে শূন্যের কোটায় নিয়ে যেতে পা

আরও খবর

Sponsered content

ব্রেকিং নিউজ