বরিশাল

মঠবাড়িয়ায় বাড়ির মালিক মারধর করায় কিশোরীর আত্মহত্য

                         মঠবাড়িয়া সমাচার ৫ মার্চ ২০২২ , ৪:৪৪:১৮ প্রিন্ট সংস্করণ

               

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলায় মরিয়ম নামে ১৫ বছরের এক কিশোরী আত্মহত্যা করেছে। মঠবাড়িয়া পৌরশহরের ভাড়াটিয়া বাসার মালিক মারধর করায় সে আত্মহত্যা করে বলে জানা গেছে।

মরিয়ম পশ্চিম সেনের টিকিকাটা গ্রামের সেলিম মিয়ার মেয়ে। দীর্ঘদিন ধরে মঠবাড়িয়া পৌর শহরে মা বাবার সাথে ভাড়া বাসায় থাকত সে।

শুক্রবার (৪ মার্চ) সকাল ১১ টার দিকে ওই কিশোরীর বাসায় দুই ছেলে বন্ধু আসে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে বাড়ির মালিক ইলিয়াস হাওলাদার তার স্ত্রী শাহিনুর ও প্রতিবেশী হালিমা বেগম তাদের মারধর করে।

এরপর দুপুর ১২টার দিকে টিনশেডের বসত ঘরের আড়ার সাথে ওড়না পেচিয়ে মরিয়ম আত্মহত্যা করে। নীয়রা উদ্ধার করে মঠবাড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডাঃ প্রিতম কুমার পাইক ইসিজি রিপোর্ট দেখে তাকে মৃত ঘোষনা করে। এ সময় ওই কিশোরীর দিনমজুর বাবা ও গৃহকর্মী মা বাসায় ছিলেন না।খবর পেয়ে তারা হাসপাতালে ছুটে আসে।

এ ঘটনায় মরিয়মের বাবা সেলিম মিয়া বাদী হয়ে বাড়ির মালিক ইলিয়াস সহ তিনজনকে বিবাদী করে শুক্রবার রাতে মঠবাড়িয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। ইলিয়াস হাওলাদার (৫০) মঠবাড়িয়া পৌর শহরের ৫ নং ওয়ার্ড গয়ালিপাড়া এলাকার মৃত রহমান মাষ্টারের ছেলে।

আত্মহত্যার শিকার ওই কিশোরীর বাবা সেলিম মিয়া জানান,বাড়ির মালিক ইলিয়াস ঘটনার সময় ফোন করে আমাকে বিষয়টি জানায়।আমি তাকে ওদেরকে মারধর না করে প্রয়োজনে পুলিশকে খবর দিতে বলি।তারপরও মারধর করেছে। আমি এর বিচার চাই।

মঠবাড়িয়া থানার ইন্সপেক্টর (অপারেশন) আব্দুল হালিম জানান, এ ঘটনায় মামলা হয়েছে ।ময়না তদন্তের জন্য লাশ মর্গে পাঠানো হয়েছে।ইতোমধ্যে এজাহারনামীয় তিন জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

আরও খবর

Sponsered content

ব্রেকিং নিউজ