বরিশাল

বাউফলে সনামধন্য লোকদের নাম ব্যবহার করে মাদক ও সন্ত্রাসী রাজত্ব চালাচ্ছে শাহিন গাজী 

                         মঠবাড়িয়া সমাচার ৭ মার্চ ২০২২ , ৪:০২:১৭ প্রিন্ট সংস্করণ

               

নিজস্ব প্রতিবেদক, পটুয়াখালীঃ পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার কাছিপাড়া ইউনিয়নের মাদরবোন গ্রামে অস্ত্র দেখিয়ে ভয়ভীতি, মাদকদ্রব্য ক্রয়-বিক্রয়, বিনা কারনে মানুষকে মারধর, চাঁদাবাজি ও বাউফলের সনামধন্য রাজনৈতিক দল আওয়ামীলীগ নেতাকর্মী ও হুইপ সচিব, মেয়রের অজান্তে তাদের নাম ব্যবহার করে বিভিন্ন অপকর্ম ও ত্রাসের রাজত্ব কায়েমের অভিযোগ উঠেছে একই এলাকার শাহিন গাজী,ফারুক গাজী,সরোয়ার গাজী, শহিদুল ইসলাম, হাসিব গাজী, সেলিম গাজী গং এর বিরুদ্ধে।

জানাগেছে, শাহিন গাজী গং এর অপকর্মের বিরুদ্ধে কথা বললে হামলা, মামলা, মারধর ও প্রাননাশের হুমকি দিয়ে ত্রাশের রাজত্ব কায়েম করেছে কাছিপাড়া ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের সাবেক মেম্বার এনতাজুল হক শাহীন গাজী গং। এরা এলাকায় একটি বাহিনী তৈরী করে বহুদিন যাবৎ মাদকদ্রব্য ইয়াবা ও গাজার ব্যবসা সহ বিভিন্ন অপকর্ম করে আসছে। বিগত দিনে এই বাহিনীর সেলিম গাজী এক কেজি গাজা সহ র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার হয়েছিলো। বাড়ীর লোকজন তাদের অপকর্মের বিরুদ্ধে বাধা দেওয়া ও নিষেধ করায় মারধর সহ মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করছে।

একই বাড়ীর সাবু গাজীর উপর সন্ত্রাসী হামলা ও বিভিন্ন মিথ্যে মামলা দিয়ে হয়রানির করার অভিযোগ রয়েছে।যে মামলাগুলো মিথ্যা প্রমান হয়েছে। এঘটনায় সাবু গাজীর স্ত্রী মোসাঃ কহিনুর বেগম বাদী হয়ে পটুয়াখালী বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজেস্ট্রেট ২য় আদালতে শাহীন গাজী (৪০), সরোয়ার গাজী(৪২), ফারুক গাজী(৪০), সেলিম গাজী (৩৮) কে আসামী করে একটি সি,আর মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নং-৪২২/২১। উক্ত মামলা করায় তারা আরও ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে বাড়ীর লোকজনের উপর শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করতে থাকে।

এবিষয়ে সাবু গাজী জানান, সে পাশের বাড়ীর এক মহিলা শাহিনুরের কাছে পাওনা টাকা চাইতে গেলে শাহীন গাজী সেই মহিলাকে কুপরামর্শ দিয়ে নারী নির্যাতন মামলা দেয়ার হুমকি দেয়। শাহিনুরের বেগম ও শাহীন গাজী উভয় মাদককারবারী। এছাড়াও সাবু গাজীর স্ত্রীর করা মামলায় শাহিন গাজী জামিনে এসে কিছু দিন পূর্বে বাড়ীর একটি গোয়াল ঘরে রাতের আধারে নিজেরা আগুন লাগিয়ে দিয়ে মিথ্যা অপবাদ চাপিয়ে দেয়। এই শাহীন গাজী গংদের অত্যাচারে বাড়ীর লোকজন অতিষ্ট হয়ে উঠেছে বলে জানান।

এছাড়া একই বাড়ীর গ্রাম পুলিশ জাকির হোসেন জানান, শাহীন গাজী গং এই বাড়ীতে ইয়াবা ও গাজার ব্যবসা করে। প্রতিদিন সন্ধ্যায় বাড়ীতে ৫/৭টি মটরসাইকেলে অপরিচত লোক আসে মাদকদ্রব্য ক্রয় বিক্রয় করতে। তাদের কারনে বাড়ীর পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে, কিন্তু ভয়ে কেউ মুখ খোলে না। এই শাহীন গংদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অপর্মের মামলা রয়েছে যেমন জি,আর মামলা নং-৮৯/২০ এবং ৯০/২০ চলমান আছে।

এব্যাপারে একই বাড়ির আরেক ব্যাক্তি মিজানুর রহমান জানান, এনতাজুল হক শাহীন গাজীদের বর্তমানে কোন কাজকর্ম নাই তারা মাদকব্যবসা করে এবং বিভিন্ন অপকর্ম করার জন্য পিস্তল ভাড়া দেয়। তাদের ভয়ে বাড়ীর সকলে আতংকিত। তাদের দ্রুত আইনের আওতায় এনে বাড়ী তথা এলাকার যুব সমাজকে মাদকের কড়াল গ্রাস থেকে রক্ষা করতে হবে এজন্য প্রশাসনের উর্ধতন কর্মকর্তা ও বাউফলের সনামধন্য রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মী, হুইপ, সচিব ও পৌর-মেয়রের সহযোগিতা কামনা করেন।

এবিষয়ে বাউফল থানার অফিসার ইনচার্জ আল-মামুন বলেন, আপরাধী যতই শক্তিশালী হোক আইনের হাত থেকে কেহই রেহাই পাবে না। অপরাধের সঠিক তথ্য প্রমান পেলে অবশ্যই আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

আরও খবর

Sponsered content

ব্রেকিং নিউজ