সারাদেশ

বাবুল-মিতুর দুই সন্তানকে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি

                         মঠবাড়িয়া সমাচার ১৬ মার্চ ২০২২ , ৩:২৬:৫১ প্রিন্ট সংস্করণ

               

সাবেক পুলিশ সুপার বাবুল আক্তারের স্ত্রী মাহমুদা খানম মিতু হত্যার ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলায় তাদের দুই সন্তানকে শিশু আইন মেনে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য অনুমতি দিয়েছেন আদালত।  বুধবার (১৬ মার্চ) চট্টগ্রাম মহানগর দায়রা জজ শেখ আশফাকুর রহমান এ আদেশ দেন।

বাবুল আক্তারের আইনজীবী অ্যাডভোকেট ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী ঢাকা পোস্টকে বলেন, সাক্ষী শিশুদের জিজ্ঞাসাবাদের ক্ষেত্রে শিশু আইন ২০১৩–এর ৫৩ ও ৫৪ ধারার বিধান কঠোরভাবে অনুসরণ করে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি দিয়েছেন আদালত।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, এর আগে গত ২৭ ফেব্রুয়ারি মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট এক আদেশে বাবুলের দুই শিশুসন্তান আক্তার মাহমুদ মাহী ও আক্তার তাবাসমুকে ১৫ দিনের মধ্যে পিবিআই চট্টগ্রাম কার্যালয়ের তদন্তকারী কর্মকর্তার কাছে নিয়ে যাওয়ার জন্য সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন। শিশু দুটি বর্তমানে দাদা আবদুল ওয়াদুদ ও চাচার তত্ত্বাবধানে বসবাস করছে।

তবে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) কার্যালয়ে কথা বলার আদেশ বাতিল চেয়ে একই আদালতে আবেদন করেন বাবুলের ভাই হাবিবুর রহমান। তার আবেদনে বলা হয়, শিশুরা বর্তমানে মানসিকভাবে বিপর্যস্ত থাকায় তাদেরকে বারবার জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে তারা মানসিকভাবে আরও বিপর্যস্ত হয়ে যাবে। এছাড়া শিশুদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য মাগুরা জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতির কক্ষে কিংবা উক্ত জেলার স্থানীয় সমাজসেবা অধিদপ্তরের প্রবেশন অফিসারের উপস্থিতি নিশ্চিত করার আবেদন করেন।

বাবুল আক্তারের আইনজীবী অ্যাডভোকেট ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী ঢাকা পোস্টকে বলেন, আজ আদালত রিভিশন মামলাটি (আবেদনটি) নামঞ্জুরক্রমে সাক্ষী শিশুদের জিজ্ঞাসাবাদের ক্ষেত্রে শিশু আইনের বিধান কঠোরভাবে অনুসরণ করে জিজ্ঞাসাবাদ করার অনুমতি দিয়েছেন।

২৫ জানুয়ারি মাহমুদা খানম মিতু হত্যার ঘটনায় তার বাবা মোশাররফ হোসেনের দায়ের করা মামলার চূড়ান্ত প্রতিবেদন আদালতে দাখিল করে পিবিআই। পিবিআই জানায়, একই ঘটনায় বাবুল আক্তারের দায়ের করা মামলার তদন্ত এগিয়ে নিতে মিতুর বাবা মোশাররফের মামলাটির চূড়ান্ত প্রতিবেদনের মাধ্যমে নিষ্পত্তি করা হচ্ছে। একই ঘটনায় দুটি মামলা চলতে পারে না। সম্প্রতি আদালত এটিকে ত্রুটিপূর্ণ উল্লেখ করেন। তাই আদালতের পর্যবেক্ষণ মেনে ও বিধিবিধান অনুসারে মিতুর বাবার দায়ের করা মামলাটির চূড়ান্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়া হয়েছে। আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী বাবুলের করা মামলাটির অধিকতর তদন্ত চলবে।

স্ত্রী মাহমুদা খানম মিতু হত্যার ঘটনায় বাবুল আক্তার ও মিতুর বাবা বাদী হয়ে পৃথক সময়ে দুটি মামলা করেন পাঁচলাইশ থানায়। এ দুটি মামলা তদন্ত করছেন পিবিআইয়ের পরিদর্শক আবু জাফর মোহাম্মদ ওমর ফারুক। এর মধ্যে বাবুল আক্তারের করা মামলাটির অধিকতর তদন্ত চলছে। অধিকতর তদন্ত চলাকালে আদালতের আদেশে ৯ জানুয়ারি বাবুল আক্তারকে নিজের করা মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, মিতু হত্যার ঘটনায় বাবুল আক্তার যে মামলাটি দায়ের করেছিলেন, সেটির তদন্ত শেষ করে আদালতে চূড়ান্ত প্রতিবেদন দিয়েছিল পিবিআই। কিন্তু আদালত চূড়ান্ত প্রতিবেদন না নিয়ে মামলাটি অধিকতর তদন্তের নির্দেশ দেন। মিতুর বাবার করা মামলাটিও তদন্ত করছে পিবিআই।

২০১৬ সালের ৫ জুন সকালে চট্টগ্রাম নগরের নিজাম রোডে ছেলেকে স্কুলবাসে তুলে দিতে যাওয়ার পথে দুর্বৃত্তদের গুলি ও ছুরিকাঘাতে খুন হন মাহমুদা খানম (মিতু)। ওই সময় এ ঘটনা দেশজুড়ে ব্যাপক আলোচিত হয়। ঘটনার সময় মিতুর স্বামী পুলিশ সুপার বাবুল আক্তার অবস্থান করছিলেন ঢাকায়। ঘটনার পর চট্টগ্রামে ফিরে বাবুল আক্তার পাঁচলাইশ থানায় অজ্ঞাতনামাদের আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

জঙ্গিবিরোধী কার্যক্রমের জন্য স্ত্রীকে হত্যা করা হয়ে থাকতে পারে বলে মামলায় অভিযোগ করেন তিনি। তবে দিন যত গড়িয়েছে মামলার গতিপথও পাল্টেছে। এক পর্যায়ে সন্দেহের কেন্দ্রবিন্দুতে আসে স্বামী বাবুল আক্তারের নাম। তদন্তে তার বিরুদ্ধেই হত্যার সঙ্গে জড়িত থাকার সংশ্লিষ্টতা পাওয়ার পর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাকে হেফাজতে নেয় পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

পরে ১২ মে বাবুল আক্তারসহ আটজনকে আসামি করে মামলা দায়ের করা হয়। স্ত্রী মাহমুদা খানম (মিতু) হত্যা মামলার প্রধান আসামি বাবুল আক্তারকে পাঁচ দিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করে পিবিআই। রিমান্ড শেষে প্রথমে আদালতে জবানবন্দি দেওয়ার কথা থাকলেও পরে জবানবন্দি দেননি বাবুল। তারপর তাকে চট্টগ্রাম কারাগারে পাঠানো হয়।

আরও খবর

Sponsered content

আরও খবর: চট্টগ্রাম

                                   

লক্ষ্মীপুরে বিএনপি’ উস্কানিমূলক বক্তব্যের প্রতিবাদে আওয়ামী লীগের বিক্ষোভ

                             
                                   

লক্ষ্মীপুর যেখানে বাধা হবে, সেখানে প্রতিরোধ বলেছেন : এ্যানি

                             
                                   

লক্ষ্মীপুরে ইউপি সদস্যের সঙ্গে জমি নিয়ে বিরোধ, হামলায় আহত ৪জন 

                             
                                   

লক্ষ্মীপুরের  টুপি কিনতে গিয়ে উধাও নাজিম

                             
                                   

লক্ষ্মীপুরের যাত্রীদের কাছে অতিরিক্ত ভাড়া টাকা আদায়ের অভিযোগ

                             
                                   

লক্ষ্মীপুরে ব্যাংক কর্মকতার বাসায় সন্ত্রাসী হামলার অভিযোগ

                             
ব্রেকিং নিউজ