সারাদেশ

অমর একুশে গ্রন্থমেলা শেষ হচ্ছে আজ

                         মঠবাড়িয়া সমাচার ১৭ মার্চ ২০২২ , ৫:১৩:০১ প্রিন্ট সংস্করণ

               

আজ থেকে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে কেউ বসবে না বইয়ের পসরা সাজিয়ে। জমবে না লেখক-পাঠক-ক্রেতারা। ঘাসের সবুজ গালিচায় কিংবা লেকের ধারে বসে সাহিত্যের আলোচনা করতে শোনা যাবে না। সরিয়ে নেওয়া হবে মোড়ক উন্মোচন ও লেখক বলছি’র মঞ্চ। এমন দিনগুলো ফের ফিরে পেতে অপেক্ষা করতে হবে প্রায় একটি বছর। সব কিছু ঠিকঠাক থাকলে ২০২৩-এর ফ্রেব্রুয়ারিতে শুরু হবে একুশের গ্রন্থমেলা।

এবার মেলায় জনসমাগম ছিল বেশ। বেচাবিক্রিও গত দুবছরের তুলনায় ভালো। তবে ক্রেতার থেকে দর্শনার্থীই বেশি। যদিও সেটিকে ইতিবাচক মনে করছেন লেখক, প্রকাশক ও সংশ্লিষ্টরা। তাঁরা বলছেন, ‘যেখানে শব্দের চর্চা থাকে, সেখানে সমবেত জনতার মধ্যে জ্ঞান ছড়িয়ে পড়ে। না চাইতেও পড়ে।

বইমেলার শেষদিন হিসেবে আজ মেলা শুরু হবে সকাল ১১টায় এবং শেষ হবে রাত ৯টায়।

এদিকে মেলার শেষ দিন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০২তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষ্যে বাংলা একাডেমি বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। আজ সকাল সাড়ে ৮টায় জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে বাংলা একাডেমির পক্ষ থেকে পুষ্পস্তবক অর্পণের মধ্য দিয়ে শুর হয় এসব কর্মসূচি।

বিকেল ৩টায় অমর একুশের মূলমঞ্চে অনুষ্ঠিত হবে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবন ও কর্ম নিয়ে আলোচনা। বাংলা একাডেমির সভাপতি কথাসাহিত্যিক সেলিনা হোসেনের সভাপতিত্বে স্বাগত বক্তব্য দেবেন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক কবি মুহম্মদ নূরুল হুদা। প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন অধ্যাপক হারুন-অর-রশিদ। আলোচনা করবেন নজরুল ইসলাম, স্বদেশ রায় ও মিজানুর রহমান।

বিকেল ৪টায় ভাষাশহীদ মুক্তমঞ্চে শিশু-কিশোরদের অংশগ্রহণে হবে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এদিকে গতকাল বুধবার অমর একুশে বইমেলায় গুণিজন স্মৃতি পুরস্কার ২০২২ ঘোষণা করা হয়েছে। আজ অমর একুশে বইমেলা ২০২২-এর সমাপনী অনুষ্ঠানে আনুষ্ঠানিকভাবে পুরস্কারসমূহ প্রদান করা হবে।

২০২২ সালের অমর একুশে বইমেলায় অংশগ্রহণকারী প্রকাশনা প্রতিষ্ঠানসমূহের মধ্য থেকে নান্দনিক অঙ্গসজ্জায় সেরা প্রতিষ্ঠান হিসেবে নবান্ন প্রকাশনী, নিমফিয়া পাবলিকেশন এবং পাঠক সমাবেশকে শিল্পী কাইয়ুম চৌধুরী স্মৃতি পুরস্কার ২০২২ প্রদান করা হয়।

এ ছাড়া ২০২১ সালে প্রকাশিত বিষয় ও গুণমানসম্মত সর্বাধিকসংখ্যক গ্রন্থ প্রকাশের জন্য ‘আগামী প্রকাশনী’কে চিত্তরঞ্জন সাহা স্মৃতি পুরস্কার-২০২২, ২০২১ সালে প্রকাশিত গ্রন্থের মধ্যে শৈল্পিক ও গুণমান বিচারে সেরা গ্রন্থ বিভাগে আবুল হাসনাত সম্পাদিত বঙ্গবন্ধু জন্মশতবর্ষ স্মারক প্রকাশের জন্য বেঙ্গল পাবলিকেশন্স, জালাল ফিরোজ রচিত লন্ডনে বঙ্গবন্ধুর একদিন গ্রন্থের জন্য জার্নিম্যান বুকস এবং সৈয়দ আবুল মকসুদ রচিত নবাব সলিমুল্লাহ ও তার সময় গ্রন্থের জন্য প্রথমা প্রকাশনকে মুনীর চৌধুরী স্মৃতি পুরস্কার ২০২২ প্রদান করা হয়। ২০২১ সালে প্রকাশিত শিশুতোষ গ্রন্থের মধ্য থেকে গুণমান বিচারে সর্বাধিক গ্রন্থ প্রকাশের জন্য কথাপ্রকাশ-কে রোকনুজ্জামান খান দাদাভাই স্মৃতি পুরস্কার-২০২২ প্রদান করা হয়।

আরও খবর

Sponsered content

আরও খবর: ঢাকা

                                   

পি কে হালদারকে বাংলাদেশে হস্তান্তরের ইঙ্গিত ইডির

                             
                                   

ফরিদপুরে ৫০ লাখ টাকা ব্যয়ে তৈরি হচ্ছে আ.লীগের সম্মেলন মঞ্চ

                             
                                   

নিউমার্কেটের ব্যবসায়ীদের হামলার শিকার সাংবাদিকরা

                             
                                   

ফেসবুকে নতুন কাপড়ের বিজ্ঞাপন দিয়ে ছেঁড়া কাপড় ডেলিভারি, গ্রেপ্তার ৫

                             
                                   

নিউ মার্কেট এলাকায় সংঘর্ষে সাংবাদিকসহ আহত শতাধিক, থমথমে নিউমার্কেট এলাকা

                             
                                   

ভেরিফিকেশনের জন্য বাসায় যেতে পারবে না পুলিশ

                             
ব্রেকিং নিউজ